Big Story

হিমাচল প্রদেশে মধুচন্দ্রিমাতে গিয়ে মৃত্যু নববধূর। দুর্ঘটনা নাকি অন্য কোনো চক্রান্ত ?

"মেয়ে খাদে পড়ে গেল, সে সময় জামাই কোথায় ছিল ? "- মৃতার বাবা

তিয়াসা মিত্র : সদ্য বিবাহিত যুগলের মধুচন্দ্রিমার গন্তব্য ছিল হিমাচল প্রদেশ। আর সেখানে গিয়ে ঘটলো এক অঘটন, তবে এটিকে অঘটন বলা চলে নাকি খুন বলা চলে তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে। দমদম-এর নববধূ ছিল সেই মহিলা। তার বাপের বাড়ি উত্তর ২৪ পরগনার আগরপাড়ায়, মেয়ের মৃত্যুর খবর পৌঁছতে কান্নাতে ভেঙে পরে সকলে। স্থানীয় সূত্রে জানা গিয়েছে, গত ২০ ফেব্রুয়ারি আগরপাড়া নর্থ স্টেশন রোড এলাকার জয়িতা দাসের বিয়ে হয় দমদম পাইকপাড়া এলাকার রাহুল পোদ্দারের। গত ৪ মার্চ নবদম্পতি মধুচন্দ্রিমায় যান হিমাচল প্রদেশে।

শুক্রবার সন্ধ্যা নাগাদ হঠাৎ হিমাচল প্রদেশের কোন্নর জেলার থানা থেকে একটি ফোন পান জয়িতার বাবা। খবর আসে, মেয়ের মৃত্যুর। পুলিশ অফিসার জানান, পাহাড়ের খাদ থেকে পড়ে মৃত্যু হয়েছে জয়িতার।খাদ থেকে পড়ে স্ত্রীর মৃত্যু হল, অথচ স্বামী কী ভাবে অক্ষত থাকলেন, তিনি তখন কোথায় ছিলেন, একাধিক প্রশ্ন তুলেছেন মৃতার বাপের বাড়ির লোকজন।

মৃতার বাবা যাদবচন্দ্র দাস বলেন, ‘‘পাঁচটা নাগাদ কিন্নর থানার ওসি ফোন করেন আমাকে। জানান, ওখানে একটি সুইসাইড পয়েন্ট আছে। আমার মেয়ে সেখান থেকে চার-পাঁচশো ফুট নীচে খাদে পড়ে গিয়েছে। জানানো হয়, ময়নাতদন্ত করতে হবে, আমাদের যেতে বললেন…’’ বলতে বলতে কেঁদে ফেলেন তিনি। তবে মেয়ে খাদে পড়ে গেল, সে সময় জামাই কোথায় ছিলেন, এ নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন যাদব। এই ঘটনার পূর্ণাঙ্গ তদন্তের দাবি জানিয়েছে মৃতার বাড়ির লোক। এই বিষয়ে ছেলের বাড়ির থেকে বলা হয়েছে সেলফি তুলতে গিয়ে ঘটে ঘটনাটি , তাদের ছেলে নির্দোষ এই বেপারে।

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: