Sports Opinion

টেস্ট নিয়ে একাধিক জল্পনা-কল্পনা সাথে রোহিত শর্মার ফিটনেস টেস্ট, উত্তরের আশায় ভারতীয় সমর্থকেরা

সিডনিতে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে কি নামবেন অধিনায়ক বিরাট ? উঠছে জোড়ালো প্রশ্ন

পল্লবী কুন্ডু : ভারতের অস্ট্রেলিয়া(India vs Australia) সফরের অধিকাংশ পথ টাই হেঁটে এসেছে দেশ। সম্পন্ন হয়েছে ওয়ান ডে এবং টি টোয়েন্টি। ফলাফল মাঝামাঝি, অর্থ্যাৎ ওয়ান ডে তে জয়ী অস্ট্রেলিয়া এবং তারপর টি টোয়েন্টিতে জয়ের শিরোপার অধিকারী হয়েছে ভারত। এবার পালা মহা যুদ্ধের। ১৭ ই ডিসেম্বর থেকে শুরু হতে চলেছে ভারত বনাম অস্ট্রেলিয়া টেস্ট। ইতিমধ্যেই সিরিজের শেষ তিনটি টেস্টে খেলবেন না বিরাট কোহলি, দেশে ফিরে নিজের সন্তানসম্ভবা স্ত্রী অনুষ্কা শর্মার পাশে থাকবেন তিনি।

অন্যদিকে, অ্যাডিলেডে সিরিজের প্রথম টেস্ট, যা দিন রাতের হবে, সেখানে খেলবেন বিরাট(Virat Kohli) এবং সেই নিয়ে ইতিমধ্যেই প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছে ভারতীয় দল। যদিও সীমিত ওভারের সিরিজ থেকে সরাসরি এমন বড় ম্যাচে নামার আগে ভারতীয় টেস্ট দলের অধিকাংশ খেলোয়াড়ই কয়েক দিন আগে অস্ট্রেলিয়া এ দলের বিরুদ্ধে প্রস্তুতি ম্যাচে নেমেছিলেন। সেই সময় টি২০ সিরিজ চলায় প্রস্তুতি ম্যাচে নামতে পারেননি অনেকেই। কিন্তু এবার সিরিজ শেষ হয়ে যাওয়ায় সিডনিতে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে কি নামবেন অধিনায়ক বিরাট কোহলি? এখন প্রশ্ন উঠছে সংশ্লিষ্ট বিষয় নিয়েই।

তবে এবার এই বিষয়ে মুখ খুললেন স্বয়ং ভারতীয় দলের অধিনায়ক বিরাট কোহলি। গত ১২ দিনে ছয়টি সীমিত ওভারের ম্যাচ খেলার পর প্রথম টেস্টে সম্পূর্ণ ফিট থেকেই নামতে চান বিরাট। আর সেই কারণে একপ্রকার পরোক্ষে দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচ না খেলারই সিদ্ধান্ত নিয়েছেন কোহলি। যদিও এই বিষয়ে দলের ফিজিওর সাথে আলোচনা করে তবে শেষ সিদ্ধান্ত নেবেন কোহলি। কোহলি বলেছেন, “দেখা যাক ঐ দিন আমি কিভাবে ঘুম থেকে উঠি। আপনারা জানেন, আমি কখনও অল্প অল্প করে খেলতে পারি না। এটাই আমি, আমি কখনই স্লিপে দাঁড়িয়ে কেবল মাত্র স্রোতের সাথে নিজেকে ভাসিয়ে দিতে পারব না। আমাকে সকালে ঘুম থেকে উঠতে হবে এবং সেই সময় নিজের দিকে দেখতে হবে। যদি আমি ভালো থাকি, আমি অবশ্যই নামব। যদি না ভালো থাকি, তাহলে আমি ট্রেনার এবং ফিজিওর সাথে কথা বলে কয়েক দিনের বিশ্রাম নিয়ে প্রথম টেস্টের আগে তরতাজাভাবে ফিরে আসব।”

পাশাপাশি ভারতীয় অধিনায়ক আরো বলেন,”আমার মনে হয় প্রথম টেস্টে নামার আগে, আমাদের এটা মাথায় রাখতে হবে যে আমাদের খেলা এখন একটি বিশেষ পর্যায়ে রয়েছে। কিন্তু তার থেকেও জরুরি যে আমরা যেন প্রত্যেকে শারীরিকভাবে সুস্থ থাকি। আমরা কোনওরকমের পেশিজনিত কোনও সমস্যা মেনে নিতে পারব না। এটাই আমাদের কাছে সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ বিষয়, যাতে আমাদের মূল খেলোয়াড়দের ফিট রাখা যায়। এই টেস্ট সিরিজে ভালো শুরু করতে গেলে, আমাদের মাঠে ১১ জন পুরো ফিট খেলোয়াড় নামাতে হবে।”

অন্যদিকে, বেঙ্গালুরুর এনসিএ-তে ১১ ডিসেম্বর রোহিতের ফিটনেস টেস্ট। সেই ফিটনেস টেস্টে পাস করলেই অস্ট্রেলিয়া উড়ে যাবেন হিটম্যান।
এদিকে রোহিতের অস্ট্রেলিয়া যাওয়া নিয়ে যে টানাপোড়েন তৈরি হয়েছে, সেই প্রসঙ্গে মুখ খুললেন সচিন তেন্ডুলকর। তিনি বলেন, “আমি রোহিতের ফিটনেসের ব্যাপারে জানিনা। এটা বিসিসিআই এবং রোহিত বলতে পারবে। তবে রোহিত শর্মার মতো ক্রিকেটার যদি ফিট থাকে, তবে অবশ্যই অস্ট্রেলিয়া যাওয়া উচিত।”

তবে বিসিসিআই সূত্রে খবর, চোট সারিয়ে অনেকটাই সুস্থ রোহিত শর্মা। হিটম্যানের হ্যামস্ট্রিং এখন আগের থেকে অনেক ভাল জায়গায় রয়েছে। ফলে ১১ তারিখ আশা করা হচ্ছে লেটারমার্কস নিয়ে ফিটনেস টেস্টে পাশ করবেন রোহিত শর্মা। আর ফিটনেস টেস্টে পাশ করলে দু-একদিনের মধ্যেই অস্ট্রেলিয়ার উড়ান ধরবেন হিটম্যান। অস্ট্রেলিয়ায় পৌঁছে বাধ্যতামূলক ১৪ দিনের কোয়ারেন্টিনে থাকতে হবে তাঁকে। সুতরাং অ্যাডিলেড ওভালে প্রথম টেস্ট এবং মেলবোর্নে বক্সিং ডে টেস্টে কোনওভাবেই খেলতে পারবেন না রোহিত শর্মা। কোয়ারেন্টিন পর্ব শেষে এক সপ্তাহের প্রস্তুতি নিয়ে সিডনি এবং ব্রিসবেনে শেষ দুই টেস্টে খেলার সম্ভাবনা থাকছে রোহিত শর্মার।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: