Nation

প্রধানমন্ত্রী-কিষান যোজনার টাকা অযোগ্যদের হাতে, ক্ষোভে ফুঁসছে কৃষকরা

১৩৬৪ কোটি টাকা ইতিমধ্যে খরচ? কেন চলছে এই অরাজকতা?

মধুরিমা সেনগুপ্ত: প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির চালু করা পিএম কিষান সম্মান নিধি যোজনার (প্রধানমন্ত্রী-কিষান যোজনা) টাকা এমন ২০ লাখ ৪৮ হাজার সুবিধাভোগী পেয়েছেন যারা ওই প্রকল্পের টাকা পাওয়ার যোগ্যই নয় এমনটাই জানা গেছে কেন্দ্রীয় কৃষিমন্ত্রকের কাছে আরটিআইয়ের জবাবে সরকারে থেকে পাওয়া তথ্য অনুসারে।এভাবেই গতবছরের ৩১ জুলাই পর্যন্ত কেন্দ্রের খরচ হয়েছে ১,৩৬৪ কোটি টাকা। যারা অযোগ্য হওয়া সত্ত্বেও এই প্রকল্পের সুবিধাভোগ করেছেন তাদের বেশিরভাগই গুজরাতে, উত্তরপ্রদেশ, মহারাষ্ট্র, পাঞ্জাব ও অসমের বাসিন্দা।

আরটিআইয়ের জবাবে কৃষিমন্ত্রক জানিয়েছে, প্রকল্পের যোগ্য নন এমন একদল কৃষক এবং আয়করদাতা কৃষকরা এই অযোগ্যদের তালিকায় রয়েছে এবং তাদের ৫৫ শতাংশই আয়কর দেয়। সরকারের পক্ষ থেকে এই টাকা উদ্ধারের চেষ্টা চালানো হচ্ছে। এই বিষয় নিয়ে বসিরহাটের কৃষক উত্তম নাথ ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন। তিনি বলেন, “সরকার তো তেল মাথায় তেল দিতে বেশি পছন্দ করে। যাদের সত্যিই দরকার তারা তো পাচ্ছেই না উল্টে আমাদের জন্য বরাদ্দটাও ছিনিয়ে নিচ্ছে। এরম চলতে থাকলে তো বাঁচা দায়”। পাঞ্জাবের অমরপ্রীত দোসাঞ্জ এরও একই বক্তব্য। তার কথায়, “এমনিতেই দেশে কৃষকদের এরকম করুন হাল। তার মধ্যে এসব অরাজকতা চলছে। প্রধানমন্ত্রীর এবার উচিত কঠোর কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ করা।

এই পিএম কিষান সম্মান নিধি যোজনা (প্রধানমন্ত্রী-কিষান যোজনা) একটি সরকারী প্রকল্প, যার মাধ্যমে সকল ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকরা তাদের ন্যূনতম আয়ের সমর্থন হিসাবে প্রতি বছর ৬০০০ টাকা পর্যন্ত পাবেন। ৭৫০০০ কোটি টাকার এই প্রকল্পটির লক্ষ্য হল জমির পরিমাণ নির্বিশেষে 125 মিলিয়ন কৃষকদের যাদের জমি ২ হেক্টর পর্যন্ত রয়েছে তাদের অর্থনৈতিক সাহায্য করা। দেশজুড়ে এই প্রকল্পের যোগ্য সমস্ত কৃষক পরিবারকে প্রতি চার মাসে তিন হাজার টাকা তিনটি সমান কিস্তিতে প্রদান করার কথা এই প্রকল্পে উল্লেখ আছে। ১লা ডিসেম্বর ২০১৮ তে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী এই প্রকল্পের সূচনা করেন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: