Education Opinion

করোনা আবহেই প্রকাশিত হল ২০২০ উচ্চ মাধ্যমিকের ফলাফল

বাকি ছিল কিছু পরীক্ষা, তাই প্রকাশ হল না মেরিট লিস্ট

HS Result 2020

দেবশ্রী কয়াল : মাঝ পথেই বন্ধ হয়ে গেছিল উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। করোনার সংক্রমণ রুখতে জারি হয় লকডাউন। আর তাতেই বাকি রয়ে গেছিল ৩ দিনের, কয়েকটি বিষয়ের পরীক্ষা। তবে এবারে সকল বাঁধা পেরিয়ে প্রকাশ হল উচ্চমাধ্যমিকের ফলাফল। আজ শুক্রবার বিকেল ৪টের সময় বিদ্যাসাগর ভবনে ফল প্রকাশ করলেন উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ প্রধান মহুয়া দাস। তিনি জানান, এবছর উচ্চমাধ্যমিকে পাশের হার ৯০.১৩ শতাংশ ছাত্র-ছাত্রী, যা এখনও পর্যন্ত সর্বাধিক, এবং তা ঐতিহাসিক।

এদিন সংসদ প্রধান জানিয়েছেন, উচ্চমাধ্যমিকে পাশের হারে শীর্ষে রয়েছে কলকাতা। এদিন ফল প্রকাশের সময় সংসদ প্রধান জানান, এ বছর মোট পরীক্ষার্থীর সংখ্যা ছিল ৭ লক্ষ ৬১ হাজার ৫৮৩ জন। তার মধ্যে ছাত্রীর সংখ্যা ছাত্রদের তুলনায় ৬৩ হাজার ১৬৪ বেশি। ২০২০ সালে পরীক্ষায় পাশ করেছে মোট ৬ লক্ষ ৮০ হাজার ৫৭ জন। গতবারের তুলনায় পাশের হার ৩.৮৪ শতাংশ বেশি। ছাত্রদের পাশের হার ৯০.৪৪ শতাংশ। খুব বেশি পিছিয়ে নেই ছাত্রীরাও। তাদের পাশের হার ৯০ শতাংশের বেশি। এবছর সবথেকে ভাল ফল করেছে কলকাতা। তারপরে রয়েছে পূর্ব মেদিনীপুর, পশ্চিম মেদিনীপুর, কালিম্পং, দক্ষিণ ২৪ পরগনা, হাওড়া, উত্তর ২৪ পরগনা, ঝাড়গ্রাম, হুগলি, নদিয়া, মুর্শিদাবাদ প্রভৃতি জেলা।

করোনা সংক্রমণের কারণে এবছর শেষ তিনদিনের মোট ১৪ টি পরীক্ষা নেওয়া হয়নি। তাই সেই পরীক্ষাগুলির নম্বর প্রত্যেক পরীক্ষার্থীর অন্য বিষয়গুলির মধ্যে পাওয়া সর্বোচ্চ নম্বরের ভিত্তিতে দেওয়া হয়েছে। আর তাই এবছর কোনও মেরিট লিস্ট বা মেধাতালিকা প্রকাশ করা যায়নি। তবে এবছরে উচ্চমাধ্যমিকে সর্বোচ্চ প্রাপ্ত নম্বর ৫০০-র মধ্যে হয়েছে ৪৯৯।

২০২০সালের উচ্চমাধ্যমিকে বিজ্ঞান শাখায় পাশ করেছে ৯৮.৮৩ শতাংশ পরীক্ষার্থী। কলা বিভাগে পাশ করেছে ৮৮.৭৪ শতাংশ পরীক্ষার্থী ও বাণিজ্য শাখায় পাশ করেছে ৯২.২২ শতাংশ পরীক্ষার্থী। ৯০ শতাংশের উপর নম্বর পেয়েছে ৩০ হাজার ২২০ জন পরীক্ষার্থী। ৮০ থেকে ৮৯ শতাংশের মধ্যে নম্বর পেয়েচে ৮৪ হাজার ৭৪৬ জন পরীক্ষার্থী।

তবে যেহেতু রাজ্যের বেশ কিছু জায়গায় লকডাউন চলছে করোনার জেরে তাই এখনই হাতে পাওয়া যাবে না মার্কশীট। অনলাইনেই এখন দেখতে হবে মার্কশিট, তা সেখান থেকে করা যাবে ডাউনলোডও। আগামী ৩১শে জুলাই, রাজ্যের ৫২টি ক্যাম্প থেকে বেলা ২টোর সময় দেওয়া হবে মার্কশিট। এ ক্ষেত্রে অভিভাবকরা আসতে না পারলে ছাত্র-ছাত্রীরা এসে মার্কশিট নিতে পারে। তবে সবাইকে নির্দিষ্ট স্বাস্থ্যবিধি মানতে হবে।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: