West Bengal

দেখা মিলছেনা লকেটের, ক্ষুব্ধ নিজ দলের নেতারাই

"হুগলির সাংসদের খোঁজে কাগজে বিজ্ঞাপন দিতে হবে এখনই"- স্নেহাশিস চক্রবর্তী

তিয়াসা মিত্র : রাজ্য বিজেপি-এর অসন্তোষের ঘটনাটা আরো একটি পালক যুক্ত হলো হুগলি জেলার দলীয় সংসদ লকেট চ্যাটার্জীর দেখা না মেলাতে। শোনা যাচ্ছে তাকে নাকি সেখানে মানুষ কাজের সূত্রে দেখতে পাইনি আজ অনেকদিন। সেই কারণে ক্ষুব্দ হচ্ছে বিজেপি দলেরই বহু নেতা। তাঁরা মানছেন, চেষ্টা করেও সাংসদের সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারছেন না সাধারণ মানুষ। কবে তাঁর দেখা মিলবে, সে প্রশ্নও উঠেছে। তবে , দলের ওপর অংশ বলছে অন্য কথা , তারা বলছেন সংসদ না থাকলেও কোনো কাজী আটকে নেই এই এলাকার। কর্মীরা সমস্ত কাজ করে ফেলছেন এক এক করে।

লোক সভা ভোট হগলির মানুষ লকেটকে বিপুল ভোট জয় করেন, আস্থা ছিল মানুষের তার ওপরে। কিন্তু কোথায় তিনি? উঠেছে প্রশ্ন। বেশ কয়েক মাস ধরেই লকেট এ রাজ্যেই নেই। স্বাভাবিক কারণেই তিনি তাঁর নিজের লোকসভা কেন্দ্রেও দীর্ঘদিন ধরেই অনুপস্থিত। তিনি রয়েছেন উত্তরাখণ্ডে। এতে আখেরে দলই সাংগঠনিক ভাবে দুর্বল হচ্ছে বলে দলেরই একাংশ মনে করছেন। চুঁচুড়ার এক বিজেপি নেতা বলেন – ” বিধায়ক বা সাংসদের তাঁর নির্বাচনী এলাকার মানুষের উপর কিছু দায়িত্ব-কর্তব্য থাকেই। প্রত্যেক দলে কর্মীরাই কাজ করেন। তারপরেও সংসদ বা বিধায়কেরা কেন অফিস খুলে বসেন? মানুষের সঙ্গে কেনই বা তাঁরা কথাবার্তা বলেন? কেন সমস্যার কথা জানতে চান?’’ তিনি আরো বলেন – ” আমরা সাংসদকে নিয়ে মানুষের দোরে দোরে গিয়েছিলাম ভোটের জন্য। এখন মানুষকে কী জবাব দেব? দল যে কাজেই তাঁকে পাঠাক, এলাকার মানুষের প্রতি তাঁর তো দায়বদ্ধতা থাকবে। দলকেও সেটা তাঁর দিক থেকে জানানো জরুরি। সামনেই পুরভোট চন্দননগরে। চন্দননগর কিন্তু হুগলি লোকসভার মধ্যেই পড়ে।”

এই নিয়ে শুরু হয়েছে কটাক্ষের পালা , যেখানে জাঙ্গিপাড়ার বিধায়ক তথা শাসক দলের জেলা সভাপতি স্নেহাশিস চক্রবর্তী বলেন -” পরিস্থিতি যে জায়গায় গিয়েছে, হুগলির সাংসদের খোঁজে কাগজে বিজ্ঞাপন দিতে হবে এখনই। আমরা রাজ্য সরকারের প্রকল্পগুলো নিয়ে মানুষের কাছে যাচ্ছি। কিন্তু কেন্দ্রীয় প্রকল্পের কী হবে ওখানে? চিকিৎসার জন্য প্রধানমন্ত্রীর তহবিলের টাকার জন্য মানুষ কোথায় যাবেন? সাংসদই তো নেই। এখন মানুষ বুঝছেন আবেগের বশে ভোট দিয়ে কী ভুল করেছেন!’’ তবে লকেট চ্যাটার্জীর সাথে ক্ষনিকের কথা হয়ে এবং জানা যায় তিনি দলের কাজেই রয়েছেন উত্তরাখণ্ডে। এবং নিয়মিত তার কর্মীদের সাথে তার কথা হয়ে এবং দরকারে তিনি তাদেরকে পরামর্শ দান করছেন।

Show More

OpinionTimes

Bangla news online portal.

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: