Weather

শীতের পথে ঘূর্ণবাত হল কাঁটা

ঘূর্ণাবর্তের প্রভাবে বাড়লো তাপমাত্রা, স্বাভাবিকের বেশি পারদ মান

পৃথা কাঞ্জিলাল : তাপমাত্রা আবারও উর্দ্ধগামী বাংলার। সর্বনিম্ন তাপমাত্রা আবারও কুড়ির ঘরে। বুধবার কলকাতায় (Kolkata) সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল স্বাভাবিকের থেকে ১ ডিগ্রি নিচে, কুড়ি ডিগ্রী। আগামী দু তিন দিনে আরও তিন ডিগ্রি পর্যন্ত তাপমাত্রা বাড়তে পারে বলে ইঙ্গিত মৌসম ভবনের (Mausam Bhavan)। এর ফলে রাতে তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় ভোরের দিকে কিছুটা কমবে। দিনের বেলা যে শিরশিরানি অনুভব হতো তা অনেকটাই উধাও হবে। কলকাতার বাতাসে এখনও জলীয় বাষ্পের সর্বোচ্চ পরিমাণ ৯১ শতাংশ। সর্বোচ্চ তাপমাত্রা স্বাভাবিকের ওপরে ৩৩.৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস। এবং বৃহস্পতিবার সকাল ৭ টা মিনিটে শহরের তাপমাত্রা ২২ ডিগ্রি সেলসিয়াস এবং এখন ৩২ ডিগ্রি।

বাংলার উত্তরে এবং দক্ষিণে বর্তমান বৃষ্টির কোন পূর্বাভাস দিচ্ছে না এখনো পর্যন্ত আবহাওয়াবিদরা। তবে মেঘলা আবহাওয়া থাকার কারণে গাঙ্গেয় পশ্চিমবঙ্গের তাপমাত্রা প্রায় ২-৩ ডিগ্রি বাড়তে পারে বলে আভাস দিয়েছে হাওয়া অফিস। তবে আগামী বৃহস্পতি-শুক্রবার নাগাদ আবহাওয়ার পরিবর্তন হবে উত্তর-পশ্চিম ভারতের রাজ্যগুলিতে। জম্মু কাশ্মীর লাদাখ হিমাচল প্রদেশ ও মোজাফফরপুর তুষারপাতের সম্ভাবনা রয়েছে। সেই শীতল হাওয়া এসে আরও এক দফায় তাপমাত্রা নামাতে পারে বাংলায়। রবিবার শহরের তাপমাত্রা আরও কমে হতে পারে ১৮.৩ ডিগ্রী সেলসিয়াস। স্বাভাবিকের থেকে ৩ ডিগ্রি নিচে পারদ। উল্লেখ্য, রাজধানী দিল্লি সহ উত্তর-পশ্চিম ভারতের বেশ কিছু রাজ্যে শৈত্যপ্রবাহের সর্তকতা।

ইতিমধ্যেই কলকাতার মানুষজন গরমের পোশাক পড়তে শুরু করে দিয়েছিল। ফ্যান বন্ধ হয়ে গিয়েছিল অনেক দিন আগেই। কিন্তু ফ্যান কে বিদায়ে ঠিক জানানো গেলোনা এখনো সঠিক ভাবে, গরম পোশাকের পরিবর্তে আবারও সাধারণ হালকা পোশাক পড়তে শুরু করে দিয়েছে। এর ফলে অসুখে পড়ছেন অনেকেই, সর্দি গর্মি হচ্ছে অনেকেরই। করোনা কালে সতর্ক থাকুন সকলেই, দরকারে গরম জল ও টোটকা হিসেবে নিতে পারেন।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: