West Bengal

রেশন বিলি নিয়ে আর কোনো দ্বন্দ্ব নয়, নয়া নির্দেশিকা জারি রাজ্য খাদ্য দফতরের তরফে

রাজ্য খাদ্য দফতরের তরফে জারি করা নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, ২৪ এপ্রিল থেকে ৩১ মে পর্যন্ত প্রতিদিন রেশন দোকান খোলা থাকবে দু'দফায়।

পল্লবী কুন্ডু : বাংলায় রেশন বিলি নিয়ে ২১ জুলাই-এর ভাষণে রাজ্যবাসীর উদ্দেশ্যে অনেক আশ্বাস দিয়েছেন মুখ্যমন্ত্রী। আর এইবার যাতে সকল গ্রাহক ঠিক মতো রেশন পরিষেবা পান সেদিকেও নজর রাখছে রাজ্য। পাশাপাশি তাদের সকলের সুরক্ষার দিকটিকেও নজরে রেখেছেন। আগে যেভাবে গ্রাহকদের রেশনের দেওয়া হত ঠিক সেই ভাবে গ্রাহকের সামনেই রেশন দোকানে চাল, গম ইত্যাদি মেপে তা বিলি করা হবে। এবার যাতে আরও বেশি মানুষ সোশ্যাল ডিস্ট্যান্সিং বজায় রেখেই রেশন সংগ্রহ করতে পারেন, তার জন্য খাদ্য দফতরের তরফে রেশন দোকান খোলা ও বন্ধের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হল।

রাজ্য খাদ্য দফতরের তরফে জারি করা নির্দেশিকায় বলা হয়েছে, ২৪ এপ্রিল থেকে ৩১ মে পর্যন্ত প্রতিদিন রেশন দোকান খোলা থাকবে দু’দফায়। সকাল ৮ টা থেকে বেলা ১২টা ও ফের দুপুর ২টো থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত খোলা থাকবে রেশন দোকান। শুধু তাই নয়, ২৫ মে ঈদ-উল-ফিতর উপলক্ষে রেশন দোকান বন্ধ থাকবে। এর পাশাপাশি যাঁরা আগে দু’টাকা কেজি দরে চাল পেতেন, আগামী সেপ্টেম্বর পর্যন্ত তাঁরা মাসে মাথা পিছু পাঁচ কেজি করে চাল পাবেন।

রেশনে প্রাপ্য চাল, গম ইত্যাদি প্যাকেট করে গ্রাহকদের হাতে তুলে দেওয়া হবে বলে সম্প্রতি নির্দেশিকা জারি করে রাজ্য সরকার। ডিলারদের রেশন দোকানে আগে থেকেই প্যাকেট করা পণ্য রাখতে হবে বলে জানানো হয়েছিল। রেশন আন্তে গিয়ে যাতে গ্রাহকদের ঘন্টার পর ঘন্টা দাঁড়িয়ে থাকতে না হয় সে কারণে। একপ্রকার নিশ্চিত হয়ে গিয়েছিলো এই পদক্ষেপ কিন্তু এই বিষয় নিয়ে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলেন, প্যাকেট করে রেশন দিলে অহেতুক বিতর্ক হওয়ার সম্ভাবনা থাকায় মেপেই দেওয়া হবে রেশন। তিনি জানান, ‘সরকারি রেশনে মাসে পাঁচ কিলো করে চাল দেওয়া হবে বলা হয়েছে, আমরা পাঁচ কিলো করেই দেব। তবে প্যাকেটে রেশন দেওয়া হবে না। কারণ প্যাকেট করলে অনেকে কম দেওয়ার অভিযোগ তুলতে পারেন।’

কিন্তু চলতি সময়তে বারংবার রেশন নিয়ে দুর্নীতির অভিযোগ উঠেছে একদিকে বিরোধী মহল থেকে, অন্যদিকে বেশ কিছু গ্রাহকও এই বিষয় নিয়ে অভিযোগের আঙ্গুল তুলেছে সরকারের দিকে।

Tags
Show More

Related Articles

Back to top button
Close
Close
%d bloggers like this: