Life Style

ওজন নিয়ে চিন্তায় পড়েছেন? মুশকিল আসান করবে জিরে

রোজকার ডায়েটে কিছু পরিবর্তন আনলে সহজেই ওজন কমানো যায়।

বর্তমান লাইফস্টাইলে ওজন বেড়ে যাওয়া একটি অন্যতম প্রধান সমস্যা। খাদ্যাভ্যাসে অনিয়মের কারণে প্রধানত এই সমস্যা দেখা দিচ্ছে। এছাড়াও আজকালকার ব্যস্ত জীবনে শরীরচর্চার অভাবে হজমের সমস্যাও হচ্ছে। রোজকার ডায়েটে কিছু পরিবর্তন আনলে সহজেই ওজন কমানো যায়। ঠিক এরকমই একটি খাদ্য হচ্ছে জিরে। জিরের অসংখ্য খাদ্যগুন, এবং এটি খাওয়া শরীরের পক্ষে খুব ভালো। যেকোনো মাধ্যমে অর্থাৎ কাঁচা হোক, ভাজা, কিংবা গুঁড়ো সবরকম ভাবেই জিরে শরীরের জন্য উপকারী। এছাড়াও রান্নায় ব্যবহৃত জিরে তো আছেই। কিন্তু এগুলো ছাড়াও জিরে খাবার একটি অপ্রচলিত উপায় আছে। এভাবে খেলে শরীরের যত্ন হবে। সারা রাত গোটা জিরে ভিজিয়ে রেখে সকালে সেই জল খেলে পেটের মেদ ঝরে, ওজন কমে। জিরেতে থাইমল নামক একটি পদার্থ থাকে যা শরীরে গেলে বেশি পরিমাণ বাইল তৈরিতে সাহায্য করে। বাইল হল এমন একটি হরমোন, যা হজমে সাহায্য করে। বিশেষত কার্বোহাইড্রেট আর ফ্যাট ভাল হজম হয় এই বাইলের সাহায্যে। জিরের গন্ধও শরীরের জন্য উপকারী। জিরের গন্ধ শরীরে গেলে বেশি পরিমাণ এনজাইম তৈরি হয় যার ফলে হজম প্রক্রিয়া গতি পায়। হজমশক্তি বাড়লে ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সুবিধা হয়।

জিরে ভেজানো জল কিভাবে ওজন কমাতে সাহায্য করে জেনে নিন:

১) ওজন তখনি নিয়ন্ত্রণে আসবে, যখন আপনি যত ক্যালোরি ঝরাবেন, তার থেকে কম ক্যালোরি খাবেন। জিরের জল সে দিক থেকে অত্যন্ত উপকারি। এক গ্লাস জিরে ভেজানো জলে থাকে মাত্র ৭ ক্যালোরি।

২) হজমপ্রক্রিয়া বাড়াতে সাহায্য করে এই জল যার ফলে পেটে মেদ জমার সুযোগ কম পায়।

৩) কাজের মাঝে অনেকসময় টুকিটাকি খেতে ইচ্ছা করে যা ওজন বাড়ার সবচেয়ে বড় কারণ। এই সময় জিরে ভেজানো জল খাওয়া উচিত। এতে ক্যালোরি বেশি না থাকলেও পেট বেশ ভর্তি রাখে। ফলে যখন তখন খাওয়ার ইচ্ছাও কমে। তাতে ওজন নিয়ন্ত্রণে থাকে।

Show More

Related Articles

Leave a Reply

Back to top button
%d bloggers like this: